আমাদের অর্জন

আমাদের অর্জন
    চন্দ্রিমা উদ্যানের ১ জন পরিত্যক্ত অন্ধ শিশুকে অপারেশনের মাধ্যমে সুস্হ করে অভিবাবকের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়
    গবাতলী থেকে ১ জন শিশুকে তার পরিবারে ফিরিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে হোষ্টেলে লেখাপড়ার সুযোগ দেয়া হয়েছে । আরও ১ জন প্রতিবন্ধী বোবা শিশুকে সিলেটে সরকারী প্রতিবন্ধী স্কুলে ভর্তি করা হয় বর্তমানে সে পড়াশুনা করছে
    গাবতলীর ধর্ষিতা ১ জন মেয়ে শিশুকে চিকিৎসা ও পুলিশী সহায়তার মধ্য দিয়ে আইন শালিস কেন্দ্রের সাহায্যে বাড়ী পৌছে দেয়া হয়েছে
    বকুর নামের এক জন আগুনে পোড়া মেয়েকে চিকিৎসা দিয়ে সাভারে হোস্টেলে ভর্তি করানো হয়
    সেন্ট যোসেফ স্কুলের বৈকালীন শাখায় ভালো ফলাফল করায় একজন পথশিশুকে আরব মিশন পাবলিক স্কুলে পড়ার সুযোগ করে দেওয়া হয়
    ২০১০ সালে ডিসেম্বরে কাওরানবাজার থেকে এক মা ও শিশুকে কিশেষভাবে চিকিৎসা করা হয়
    শিশু পল্লী প্লাসে দু্‌ইজন মাকে তিনজন শিশু সহ পূর্নবাসন করা হয়
    শিশুদের বিনোদনের জন্য আন্ত:ধর্মীয় সেবাসংঘ কমিটির সাথে যৌথ ভাবে পথশিশু উৎসব পালন করা হয়, অনুষ্ঠানে প্রায় ৩০০ শিশু অংশগ্রহন করে । অনুষ্ঠানটিতে সমাজের বিশিষ্ট জনেরাও উপস্হিত ছিলেন
    সুচিকিৎসার জন্য ইতালি থেকে আগত ২ জন চিকিৎসক ২ মেয়াদে ৭ দিন করে চিকিৎসা সেবা দেন । একবার একজন কার্ডিওলজিস্ট চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন

amaderArjon
বিদেশে পথশিশু সেবা সংগঠনের ভাবমূর্তি
শুধু মাত্র বাংলাদেশেই নয় আমাদের স্বেচ্ছাসেবীরা দেশের বাইরেও বিভিন্ন কর্মশালায় অংশগ্রহন করছেন ।
    ২০০৮ সারে ফেব্রুয়ারী মাসে ৩ জন স্বেচ্ছাসেবী ভারতে জাতীয় পর্যায়ের একটি সেমিনারে অংশ নেন
    ২০০৮ সালে মে মাসে ২ জন স্বেচ্ছাসেবী ব্রাসিলে আমাদের কাজের সাক্ষ্য প্রদান করেন
    ২০০৯ সারে জানুয়ারী মাসে আরও ১ জন স্বেচ্ছাসেবী ইতালিতে আমাদের কাজের সাক্ষ্য প্রদান করেন
    শিশুদের সাহায্যের করার জন্য ন্যাপলিতে ২ দিন ব্যাপী গানের অনুষ্ঠান করা হয়েছে এবং অর্জিত অর্থ শিশুদের কল্যানে ব্যয় হবে
    আমাদের কিছু স্বেচ্ছাসেবী ভারতের নবজীবন বালা ভবনে কাজের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন
    আমাদের একজন স্বেচ্ছাসেবী মায়ানমারে এবং স্বেচ্ছাসেবীদের মধ্যে একজন মায়ানমার ও কোরিয়ায় কাজের অভিজ্ঞতা সহভাগিতা করছেন
    আমাদের একজন স্বেচ্ছাসেবক থাইল্যান্ডে কাজের অভিজ্ঞতা বিনিমিয় করেন

    আমাদের দুইজন স্বেচ্ছাসেবক দক্ষিন কোরিয়া এবং রাশিয়াতে খন্ডকালীন স্বেচ্ছাসেবা কাজে অংশগ্রহন করেন

    আমাদের একজন স্বেচ্ছাসেবক বর্তমানে গিনি বিসাউতে স্বেচ্ছাসেবা দানে নিয়োজিত আছেন

বাংলাদেশীরাও স্বেচ্ছাসেবা কাজ করতে পারে এটা ছিলো বিদেশীদের জন্য নতুন ধারনা । এই সমস্ত ভ্রমন ও অভিজ্ঞতার মাধ্যমে দিন দিন স্বেচ্ছাসেবীদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হচ্ছে ।

Leave a Reply